ফ্রান্সের প্যারিসে মে দিবসের শোভাযাত্রা থেকে সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর পাবলিক সেক্টরে শ্রমিকদের মর্যাদা পুনর্গঠনের প্রতিবাদে শ্রমিক ইউনিয়ন আয়োজিত ওই বিক্ষোভে সহিংসতার ঘটনায় আহত হয়েছে এক পুলিশ সদস্যসহ চারজন। দোকানপাট ভাঙচুর ছাড়াও আগুন দেওয়া হয়েছে বেশ কয়েকটি গাড়িতে। বিবিসি জানিয়েছে ব্লাক ব্লকস নামে পরিচিত বামপন্থি একটি গ্রুপ মুখোশ পরে ওই বিক্ষোভে ঢুকে পড়ে ।এই মুগোশ পড়া গ্রুপের সমর্থকরা সহিংসতার ঘটনা ঘটায় বলে বিবিসি জানাচ্ছে। মুখোশ পরে বিক্ষোভে অংশ নেওয়ার সমালোচনা করেছে ফ্রান্স সরকার।
এই ঘটনায় প্রায় ২০০ মুখোশধারী বিক্ষোভকারীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
পুলিশ জানিয়েছে, শ্রমিক ইউনিয়নগুলোর ডাকা বার্ষিক মে দিবসের বিক্ষোভে মুখোশ পরা ও হুডে মাথা ঢাকা প্রায় ১২০০ বিক্ষোভকারীও উপস্থিত ছিল।
মূল বিক্ষোভ মিছিলটি রাজধানীর রাস্তা ধরে যাওয়ার সময় মুখোশধারীরা দোকানপাটের জানালা ভাংচুর করে উস্তারলিজ স্টেশনের কাছে ম্যাকডোনাল্ডের একটি বিক্রয় কেন্দ্র আগুন ধরিয়ে দেয়। এ সময় অন্যান্য বিক্ষোভকারীরা মূল বিক্ষোভ মিছিলটি ধরে রাখার চেষ্টা করেন।
দাঙ্গাকারীরা রাস্তায় থাকা অনেকগুলো গাড়িতে ও একটি গাড়ির শোরুমে আগুন ধরিয়ে দেয়। রাস্তার পাশের দেয়ালগুলোতে গ্রাফিতি এঁকে দেয়।
পুলিশ কাঁদুনে গ্যাস নিক্ষেপ করে ও জলকামান ব্যবহার করে দাঙ্গাকারীদের ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা করে। এ সময় দাঙ্গাকারীরা পথনির্দেশকগুলো বাঁকিয়ে নিচে নামিয়ে ও পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে পুলিশ কর্মকর্তাসহ চার জন আহত হন।
মুখ ঢেকে বিক্ষোভে অংশ নেওয়ায় বিক্ষোভকারীদের সমালোচনা করেছেন ফ্রান্স সরকারের মুখপাত্র বেঞ্জামিন গ্লিভো। হুডে মাথা ঢাকা বিক্ষোভাকারীদের ‘গণতন্ত্রের শত্রু’ বলে অভিহিত করেছেন তিনি।
তথ্যসূত্রঃ বিবিসি/রয়টার্স