গত ৭ এপ্রিল রাজধানীর ভাটারা থানার সাঈদ নগরের সাত বছরের গারো শিশু ধর্ষণের সুষ্ঠু তদন্ত ও ধর্ষকের সবোর্চ্চ শাস্তির দাবিতে মুখে কালো কাপড় বেঁধে মৌন মিছিল করেছে জাতিগত নিপীড়ন বিরোধী ছাত্র আন্দোলন ।

আজ বিকাল ৫ ঘটিকায় মৌন মিছিলটি নদ্দা ওভার ব্রিজ থেকে শুরু হয়ে নতুন বাজার মোড় প্রদক্ষিন করে পুনরায় নদ্দায় এসে শেষ হয়। মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয় । সভায় সংহতি বক্তব্য রাখেন যুবনেতা বুলবুল রিছিল। তিনি তার বক্তব্যে গারো শিশু ধর্ষণসহ সারাদেশে অব্যাহত ধর্ষণের সুষ্ঠু বিচারের জোর দাবি জানান । তিনি আরো বলেন, অপরাধীরা সহজেই ছাড়া পায় বলেই অন্যেরা এরকম ঘৃন্য কাজ করার সাহস পায় । জাতিগত নিপীড়ন বিরোধী ছাত্র আন্দোলনের সদস্য সচিব উন্নয়ন ডি. শিরা তার বক্তব্যে বলেন, “দেশের অন্যান্য নারীদের মতোই আদিবাসী নারীরাও প্রচন্ড নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে বসবাস করছে । এই নিরাপত্তাহীনতার মধ্যেই আদিবাসী নারীরা নিপীড়নের শিকার হন নারী ও আদিবাসী নারী পরিচয়ে” । দেশে বিচার ব্যবস্থা আরো শক্ত ও কঠোর হলে এবং আইনের সঠিক প্রয়োগ হলে এ ধরনের ঘটনা কম হতো বলেও তিনি উল্লেখ করেন ।

এই মৌন মিছিল ও প্রতিবাদ সভায় সংহতি প্রকাশ করে বাংলাদেশ গারো ছাত্র সংগঠন, গারো স্টুডেন্ট ফেডারেশন, গারো স্টুডেন্ট ইউনিয়ন, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ, বাংলাদেশ হাজং ছাত্র সংগঠন । সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ প্রায় শতাধিক ছাত্র- যুব প্রতিবাদী এই মৌন মিছিলে অংশ নেন।
উল্লেখ্য, গত ৭ এপ্রিল বিকালে ভাটারার সাঈদ নগরে সাত বছরের গারো শিশু রফিক হাসান (৩৬) কর্তৃক ধর্ষিত হয় । ঘটনার দিনই পার্শ্ববর্তী ভাড়াটিয়ারা ধর্ষক কে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে । এ ঘটনায় শিশুটির মা বাদী হয়ে ভাটারা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছে।