শ্রীলঙ্কায় সিংহলী বৌদ্ধ ও মুসলিমদের দাঙ্গার প্রেক্ষিতে জারি করা জরুরি অবস্থা প্রত্যাহার করা হয়েছে। রবিবার দেশটির প্রেসিডেন্ট মাইথ্রিপালা সিরিসেনা জরুরি অবস্থা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম রয়টার্স।
টুইটারে দেওয়া এক পোস্টে শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘জননিরাপত্তা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে গতকাল দিবাগ মধ্যরাত থেকে জরুরি অবস্থা প্রত্যাহারের নির্দেশ দিয়েছি।’
পর্যটন শহর ক্যান্ডিতে দাঙ্গায় ব্যাপক সহিংসতার প্রেক্ষিতে গত ৬ মার্চ দেশজুড়ে ১০ দিনের জন্য জরুরি অবস্থা জারি করে দেশটির কর্তৃপক্ষ। তবে জরুরি অবস্থার মধ্যেইও দাঙ্গা অব্যাহত থাকে।
সহিংসতায় দুই ব্যক্তি নিহতের পর জরুরি অবস্থা জারির সিদ্ধান্ত নেয় কর্তৃপক্ষ।
শ্রীলঙ্কা সরকার জানিয়েছে, যে কারণ দেখিয়ে মুসলিমিবিরোধী দাঙ্গা ছড়িয়েছে তা পুরোপুরি ভিত্তিহীন। বাইরে থেকে সংঘাত উসকে দেওয়া হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন শ্রীলঙ্কা সরকারের প্রভাবশালী মন্ত্রী শরৎ আমুনউগামা। বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে তিনি বলেন, এর পেছনে একটি সংঘবদ্ধ ষড়যন্ত্র রয়েছে। তবে সরকার নিরপেক্ষভাবে আইনের শাসন বাস্তবায়ন করবে। তবে দাঙ্গার পেছনে সরকারের নিস্ক্রিয়তাকে দায়ী করেছে শ্রীলঙ্কার বিরোধী দলগুলো।
সূত্র: রয়টার্স।