গত সোমবার বিকালে ইউনেস্কো সদর দপ্তরের সামনে এক প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করেছে ইউরোপিয়ান জুম্ম ইন্ডিজিনাস কাউন্সিল। প্রতিবাদ সমাবেশে চাকমা রানী ইয়েন ইয়েন’র উপর হামলা ও সেনা-পুলিশ কর্তৃক লাঞ্ছনার বিষয় উল্লেখ করা হয়। পাশাপাশি সেনা কর্তৃক দুই মারমা আদিবাসী মেয়েকে ধর্ষনের জন্য অভিযুক্তদের সনাক্ত করে বিচারের দাবী জানানো হয়।
প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা বলেন, রাঙামাটির বিলাইছড়িতে ধর্ষণ ও যৌন নির্যাতনের শিকার দুই মারমা তরুণীর ন্যায়বিচারের পক্ষে দাঁড়াতে গিয়ে চাকমা রাণী ইয়ান ইয়ান এর ওপর বর্বরোচিত ও ন্যাক্কারজনক হামলা চালিয়েছে পুলিশ ও সেনা সদস্যরা। গত ১৫ ফেব্রুয়ারি প্রিয় চাকমা রাণী ইয়ান ইয়ান এর ওপর সেনাবাহিনী ও রাষ্ট্রীয় প্রশাসন কর্তৃক যে বর্বরোচিত ও ন্যাক্কারজনক হামলা হয়েছে ইউরোপে বসবাসরত জুম্ম সমাজ অত্যন্ত ব্যথিত, মর্মাহত এবং একই সাথে ক্ষুব্ধ। ইউরোপে বসবাসরত জুম্মরা মনে করে এই আঘাত পার্বত্য চট্টগ্রাম তথা সকল জুম্ম আদিবাসী সমাজের উপর অপমান ও চরম আঘাত। এ ধরনের অপমান তারা নীরবে সহ্য করবে না।
ইউরোপিয়ান জুম্ম ইন্ডিজিনাস কাউন্সিলের সুদর্শন চাকমার সভাপতিত্বে উদ্বোধনী বক্তব্য দেন বাবু সুনীতি বিকাশ চাকমা। স্বাগত বক্তব্য দেন ইউরোপিয়ান জুম্ম ইন্ডিজিনাস কাউন্সিলের সাধারন সম্পাদক বাবু শাক্যমিত্র চাকমা।
লা ভোয়া দে জুম্ম’র তরুন কান্তি চাকমার উপস্থাপনায় বক্তব্য রাখেন, সন্তোষ বিকাশ চাকমা, ফেদেরিক চাকমা, লা ভোয়া দে জুম্ম’র সভাপতি ডমিনিক ক্লোচন প্রমুখ।