২২ জানুয়ারি ২০১৮ দিবাগত রাত আনুমানিক ১:৩০ টায় রাঙ্গামাটি জেলাধীন বিলাইছড়ি উপজেলার ফারুয়া ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের অরাছড়ি গ্রামে এক মারমা কিশোরী (১৭) ফারুয়া সেনা ক্যাম্পের সেনাসদস্য কর্তৃক নিজ বাড়িতে ধর্ষণের শিকার হয়েছে।

জানা গেছে, সুবেদার মিজান এর নেতৃত্বে ফারুয়া সেনা ক্যাম্পের একদল সেনাসদস্য ঐ সময় উক্ত অরাছড়ি গ্রামে আসে। এসময় সেনাদলের দুই সদস্য তল্লাশীর কথা বলে উক্ত ধর্ষিতা কিশোরীর বাড়িতে প্রবেশ করে কিশোরীর বাবা-মাকে বাড়ির বাইরে আসতে বাধ্য করে। এরপর সেনাসদস্যদের মধ্যে একজন দরজায় অস্ত্র নিয়ে থাকে, অপরজন উক্ত মারমা কিশোরীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। ধর্ষণের সময় কিশোরী চিৎকার করলেও অস্ত্রের মুখে বাবা-মা এগিয়ে আসতে পারেনি।

এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে ধর্ষণের ঘটনাটি সেনাদলের কম্যান্ডার সুবেদার মিজানকে জানানো হলেও সুবেদার মিজান এব্যাপারে নিজে তদন্ত করে শাস্তি দেবেন বলে জানান। তবে তিনি এব্যাপারে কাউকে না জানানোর নির্দেশ দেন। আর যাওয়ার সময় পরদিন সকালে এলাকার মেম্বার, কার্বারী ও হেডম্যানকে ফারুয়া সেনা ক্যাম্পে গিয়ে দেখা করার নির্দেশ দেন।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত জানা গেছে, আজ (২২ জানুয়ারি) সকালে স্থানীয় মেম্বার, কার্বারী ও হেডম্যানগণ ফারুয়া সেনা ক্যাম্পে গেছেন এবং এখনও পর্যন্ত ফিরে আসেননি। অপরদিকে এলাকাটি দুর্গম হওয়ায় এবং সেনাবাহিনীর ভয়ে ধর্ষিতার বাবা-মা ও আত্মীয় স্বজনরা এখনও চিকিৎসার জন্য ধর্ষিতাকে কোন হাসপাতালে নিয়ে যেতে পারেননি।