রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারকে চাপ দিতে বিশ্ব সম্প্রদায়ের সহায়তা চেয়েছে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোট। একইসঙ্গে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে দল, মত নির্বিশেষে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছে জোট। শনিবার দুপুরে ১৪ দলের বৈঠক শেষে আওয়ামী লীগের সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এই আহ্বান জানান ১৪ দলের সমন্বয়ক, আওয়ামী লীগ সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

১৪ দল নেতারা বলেন, ‘এই ইস্যুতে প্রতিবেশী দেশ ভারতসহ আমাদের বিশ্বাস সবাই এগিয়ে আসবে। জাতিসংঘ শুধু চিঠি দিয়ে নয়, সমস্যা সমাধানে কার্যকরি ভূমিকা পালন করবে।’

সভায় বাংলাদেশ ওয়ার্কাস পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেন, ‘রোহিঙ্গা সমস্যা আমাদের জাতীয়, নিরাপত্তা ও রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা যাতে নষ্ট না করতে পারে সেই দিকে সবাইকে নজর দিতে হবে। এ জন্য আমাদের জাতীয় ঐক্যমত প্রয়োজন। কিন্তু বিএনপি-জামায়াত জোট এ নিয়ে পরিস্থিতির সুযোগ গ্রহণ করতে চাচ্ছে। যা ঠিক নয়।’

জাতীয় পার্টির (জেপি) মহাসচিব শেখ শহীদুল ইসলাম বলেন, ‘রোহিঙ্গা সমস্যা মায়নমারের আভ্যন্তরীণ সমস্যা। এর সমাধান সে দেশের সরকারকে করতে হবে। রোহিঙ্গাদের সম্পূর্ণ নিরাপত্তা দিয়ে পূর্ণ নাগরিক মর্যাদা দিয়ে তাদের দেশের ফেরত নেয়ার ব্যবস্থা মিয়ানমার সরকারকেই করতে হবে। আমাদের সরকার কেবল মানবিক দিক বিবেচনা করে তাদের আশ্রয় দিয়েছে।’ মিয়ানমার-বাংলাদেশ সীমান্তে স্থলমাইন আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী এটা মানবতাবিরোধী অপরাধ, বলেও জানান তিনি।

এর আগে তরিকত ফেডারেশনের চেয়ারম্যান সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভাণ্ডারীর সভাপতিত্বে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আফজাল হোসেন, দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, উপ-দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, জাসদ (একাংশ) সভাপতি শরীফ নুরুল আম্বিয়া, সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হক প্রধান, জাসদ একাংশের সাধারণ সম্পাদক শিরিন আখতার, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা, গণতান্ত্রিক পার্টির সাধারণ সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন প্রমুখ।