লোকমেলার চিরায়ত রূপ দেখা গেছে রাজধানীতে। দর্শক-শ্রোতারা উপভোগ করলেন ভেলা ভাসানি, লালকাঁচ ও গাজীর পটের পরিবেশনা।

ঐতিহ্যের স্বরূপ সন্ধানে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির উন্মুক্ত প্রাঙ্গনে এই আয়োজনই যেন হয়ে উঠেছিল গ্রামীণ একটি মঞ্চ।

‘রঙ্গ ভরা বঙ্গ’ নামের একটি সংগঠন আয়োজিত দুই দিনব্যাপী ‘লোকমেলার পার্বণ উৎসব’ শীর্ষক অনুষ্ঠানমালার সমাপনী দিন ছিল শনিবার।

২৮ জুলাই দুই দিনব্যাপী এই ‘লোকমেলার পার্বণ উৎসব’ উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর।

গতকালের অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক হায়াৎ মামুদ। আরো বক্তব্য রাখেন ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের কর্মকর্তা সাখাওয়াৎ হোসেন, আলোকচিত্রী বুলবুল আহমেদ, ইউডার চারুকলা বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক আলাউদ্দিন আহমেদ, বাংলা একাডেমির উপ-পরিচালক আমিনুর রহমান সুলতান ও ‘রঙ্গ ভরা বঙ্গ’ সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ইমরান উজ-জামান।

লোকসাংস্কৃতিক পরিবেশনায় গতকাল ছিল দোহারের মাদার বাঁশ, মধুপুরের গারো জনগোষ্ঠীর রে রে ও মুন্সীগঞ্জের ভেলা ভাসানির পরিবেশনা।

অনুষ্ঠানের প্রথম দিন সন্ধ্যায় পরিবেশিত হয় গাজীর পট, লালকাঁচ ও বেহুলার ভাসান। এছাড়া প্রথম দিনের অনুষ্ঠানে ‘বাংলার মেলা বাংলার পার্বণ’ নামে একটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়। প্রথম দিন নরসিংদী থেকে আসা ফজল আলীর দল গাজীরপট, বিক্রমপুর থেকে আসা অজিত গোস্বামীর দল লালকাঁচ ও টাঙ্গাইল থেকে আসা রহিম বাদাইমার দলের ভাসান গান পরিবেশিত হয়।